চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৌর আ.লীগের কাউন্সিল ঘিরে উৎসবের আমেজ  

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৯৮ বার পঠিত

 

ফেরদৌস সিহানুক শান্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ

আগামীকাল ২৪ সেপ্টেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হতে যাচ্ছে। সর্বশেষ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয় ২০১৪ সালের ২০ নভেম্বর। স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন দিবসেই সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে এ সংগঠনের কর্মকান্ড। তাই স্থানীয় পর্যায়ে সংগঠনকে চাঙ্গা করতে নতুন কাউন্সিলের ওপর জোর দিচ্ছেন দলীয় নেতা-কর্মীরা। জানা গেছে, কাউন্সিলরদের মতামতের মাধ্যমে দলের তরুণ নেতাকর্মীরা নতুন নেতৃত্ব প্রত্যাশা করছে এ সম্মেলন।

 

পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে বর্ণীল সাজে সজ্জিত করা হয়েছে সম্মেলনস্থল শহরের জেলা ষ্টেডিয়ামসহ এর আশপাশের এলাকা।

 

পৌর আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংংগঠনের নেতামকর্মীদের মাঝে বইছে উৎসবের আমেজ। শহরের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় বিল বোর্ডে শোভা পাচ্ছে প্রার্থীদের ছবি। এ সম্মেলনের মাধ্যমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবে তাই পছন্দের প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে ব্যানার ফেস্টুনের মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছেন দলীয় ব্যক্তি সমর্থক নেতাকর্মীরা। এতে শহর জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে সাজ সাজ রব।

 

তারা দলের ক্রান্তিকালসহ বর্তমান সময়ে দলকে সুসংগঠিত করতে বিভিন্ন ফিরিস্ত তুলে ধরছেন। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও চলছে উৎসবের আমেজ। পৌর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, দক্ষ সংগঠক দুঃসময়ের ত্যাগী নেতা ও ক্লিন ইমেজের প্রার্থীকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত করতে চান। কেননা দলের ভেতরে ঘাপটি মেরে বসে থাকা ব্যক্তিরা দলকে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ করছে। তারা নিজের স্বার্থকে চিরতার্থ করার জন্য দলের মধ্যে বিভক্তি করে ফায়দা লুটছে। এখন সময় এসেছে তাদের চিহ্নিত করার। মাঠ পর্যায়ের দক্ষ ও ত্যাগী নেতা হিসেবে যাদের গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে তাদের নির্বাচিত করতে চাইছেন।

 

সম্মেলনে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ওয়ার্ড ১৫টি এবং কমিটিগুলোর নেতৃবৃন্দের মধ্যে ৩৭০ জন কাউন্সিলর হিসেবে ভোট দিয়ে নেতা বাছাই করবেন। কে হচ্ছেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তা নিয়ে চলছে দলের মধ্যে চলছে জল্পনা কল্পনা। কেননা আগামী পৌর নির্বাচনসহ অন্যান্য নির্বাচনে এর প্রভাব দলের মধ্যে পড়বে। সেক্ষেত্রে দলের কর্মীরা মনে করছেন সকল ভেদাভেদ ভূলে আরো সুসংগঠিত করতে হবে। সর্বশেষ পৌর আ.লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৪ সালের ২০ নভেম্বর।

 

এছাড়া ১৫টি ওয়ার্ডে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। কেন্দ্রীয় আ.লীগের নির্দেশে জেলা ও সদর উপজেলা আ.লীগ কমিটি গঠনে এ উদ্যোগটি গ্রহণ করেন। সম্মেলন হচ্ছে তাই নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসাহ-উদ্দিপনার শেষ নেই। নতুন করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীরা দৌড়ঝাপ চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে একাধিক নেতা-কর্মী জানান, দলের মধ্যে কোন ধরনের বিভাজন না থাকে তার সে প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। স্বাধীনতার স্বপক্ষের নতুন নতুন কর্মী সৃষ্টি করে সাংগঠনিক দক্ষতা বৃদ্ধিতে তাদের আপ্রাণ চেষ্টা থাকবে। অতীতের সকল ভেদাভেদ ভূলে দলকে সুসংগঠিত করতে একযোগে কাজ করতে হবে।

 

এবারের কাউন্সিলে প্রতিদ্বন্দিতায় সভাপতি প্রার্থী রয়েছেন জেলা আ.লীগের কোষাধ্যক্ষ মোঃ এরফান আলী, জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ তাজিবুর রহমান, শহর আ.লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল জলিল, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি এ্যাড. আব্দুস সামাদ বকুল। এদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরা হচ্ছেন-সাবেক ছাত্রনেতা আবু সুফিয়ান, সাবেক ছাত্রনেতা গোলাম শাহনেওয়াজ অপু, শহর আ.লীগের যুগ্ম-সম্পাদক কৃষিবিদ রোকনুজ্জামান, দপ্তর সম্পাদক জুবায়ের হোসেন অঙ্কুর, রুহুল আমীন রাসেল, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল হাকিম।

 

এবারের কাউন্সিলে প্রতিদ্বন্দিতায় সভাপতি প্রার্থী রয়েছেন জেলা আ.লীগের কোষাধ্যক্ষ মোঃ এরফান আলী, জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ তাজিবুর রহমান, শহর আ.লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল জলিল, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি এ্যাড. আব্দুস সামাদ বকুল।

 

এদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরা হচ্ছেন-সাবেক ছাত্রনেতা আবু সুফিয়ান, সাবেক ছাত্রনেতা গোলাম শাহনেওয়াজ অপু, শহর আ.লীগের যুগ্ম-সম্পাদক কৃষিবিদ রোকনুজ্জামান, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াসমিন সুলতানা রুমা, দপ্তর সম্পাদক জুবায়ের হোসেন অঙ্কুর, রুহুল আমীন রাসেল, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল হাকিম। জেলা শহরের পুরাতন স্টেডিয়ামে এ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

 

এছাড়া উপস্থিত থাকবেন সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, ডাঃ রোকেয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, সদস্য বেগম আখতার জাহান, অধ্যক্ষ মেরিনা জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মুা. জিয়াউর রহমান, সাধারন সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ, সহ-সভাপতি বীর সুক্তিযোদ্ধা মোঃ রুহুল আমিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডাঃ শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল এমপি, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌসী ইসলাম জেসী।

 

জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ বলেন, যারা দলকে সময় দেন, তারা আসলে দলটি আরো সুসংগঠিত হবে। হঠাৎ করে এসে জুড়ে না বসে এরকম ব্যক্তি যেন না আসে। নির্বাচনে যিনারা জয়ী হবেন তিনাদের নিয়ে দলকে আরো শক্তিশালীকরা হবে।

 

 

ফেরদৌস সিহানুক শান্ত

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

০১৭৫৮৩৫৪২৭১

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর