এমপির স্ত্রী ও রাবি শিক্ষকের আত্মহত্যার চেষ্টা, রহস্যময় স্থানে দাড়িয়ে মোস্তাকিন

সুমন হোসেনঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৪২ বার পঠিত

মোঃ সুমন হোসেন রাজশাহীঃ

রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ পত্নী রাবি শিক্ষিকা এলিনা আক্তার পলি অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করা নিয়ে এক রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। এই রহস্যে যুক্ত হয়েছে মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার ধামিন নওগাঁ গ্রামের হাফিজুলের ছেলে মোস্তাকিন (২৩) কে নিয়ে।

জানা গেছে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় এলিনা আক্তার পলি, তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিনের স্ত্রী। তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রথমে এলিনাকে জরুরি বিভাগ থেকে মেডিসিন বিভাগের ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে নেওয়া হয়েছিল। অবস্থার অবনতি হলে রাত ১২ টার দিকে আইসিইউতে নেয়া পলির অবস্থা এখন স্থিতিশীল রয়েছে। তবে, অবস্থার উন্নতি হতে সময় লাগবে।
রাতে হাসপাতালে সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন ফোন করে জানান তার এক রোগী ৫০টি ঘুমের ওষুধ খেয়েছে। এটা তার স্ত্রী একথা আয়েন উদ্দিন বলেননি। পরে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি ৫০টি ট্যাবলেট খাননি। তবে অন্তত ২০ টি ট্যাবলেট খেয়ে থাকতে পারেন।’

এ ব্যাপারে সাংসদ আয়েন উদ্দিন গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমার স্ত্রীকে ইন্টারনেট থেকে ফোন করে একটি ছেলে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। নয়তো আমার বাচ্চাকে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি দেয়। পরে টেনশনে আমার স্ত্রী ঘুমের ওষুধ খেয়ে আমাকে ফোন করে। আমি তখন মোহনপুরে নিজ নির্বাচনি এলাকায় ছিলাম। ঘুমের ওষুধ খেয়ে সে মাথা ঘুরে পড়ে যায়। তখন রাত ১২ টায় তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

তিনি আরো বলেন, তার স্ত্রী এখন ভাল আছেন। যে ছেলেটি ফোন করেছিলো তাকে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ দুর্গাপুর থেকে আটক করেছে। তবে ইন্টারনেট থেকে ফোন করায় কোন নম্বর ওঠেনি। তাই যাচাই বাছাই করা হচ্ছে।’ এদিকে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বোয়ালিয়া থানা পুলিশ।

তবে এ বিষয়ে এমপির দেয়া তথ্যের সঙ্গে পুলিশের দেয়া তথ্যের গড়মিল রয়েছে। বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন গণমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, পুলিশ এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করেনি।

এদিকে দূর্গাপুর থানার ওসি আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন বোয়ালিয়া থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে মোস্তাকিনকে আটক করে নিয়ে গেছে। কেন কি কারণে আটক করেছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেনি ওসি।

রাজশাহী মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক গণমাধ্যমকে জানান, সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দীন অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি যাচাইবাছাই করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে কথা বললে কেশরহাট পৌরসভার সাবেক মেয়র আলাউদ্দিন বলেন, আমি ঢাকায় আছি। ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার তাকে মোস্তাকিনের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। এর বেশি কিছু বলতে নারাজ তিনি।
এদিকে নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক এক বিশ্বাস্ত সুত্র নিশ্চিত করেন একটি অনৈতিক সম্পর্কে ধামাচাপা দিতে বোয়ালিয়া থানা ওসিকে ব্যবহার করছেন এমপি আয়েন। মামলা ছাড়াই মোস্তাকিনকে গত ৩০ ঘন্টা আগে আটক করেন বোয়ালিয়া থানা পুলিশ। এখনো তাকে চালান না দিয়ে অন্যভাবে ফাসানো পায়তারা চালাচ্ছেন ওসি।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর