হাজার হাজার মানুষের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন রাসিক মেয়র লিটন

রাজন ইসলামঃ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২৪৮ বার পঠিত

 

রাজন ইসলামঃ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার অন্যতম সারথী এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের আয়োজনে গণসংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

আজ শনিবার (১১ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় মহানগরীর বাটার মোড়, সাহেব বাজারে এই গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে হাজার হাজার দলীয় নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও শ্রেণীপেশার সর্বস্তরের মানুষের ফুলেল শুভেচ্ছা আর ভালোবাসায় সিক্ত হন জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামানের সুযোগ্যপুত্র রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

অনুষ্ঠানে এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে সম্মাননা স্মারক, ফুলের শুভেচ্ছা ও মানপত্র প্রদান ও উত্তরীয় পরিয়ে সংবর্ধিত করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ। এরপর পর্যায়ক্রমে হাজার হাজার দলীয় নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ রাসিক মেয়র লিটনকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন।

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল। বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, সদস্য আখতার জাহান সহ বিভিন্ন সাংসদবৃন্দ ও বিভিন্ন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। জননেতা এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের পরিবারের পক্ষে তাঁর কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা বক্তব্য দেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আমি যাতে আমার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে পারি, সকলে দোয়া করবেন। আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে দলের জন্য এবং মানুষের জন্য কাজ করে যাব। আমার পরিশ্রম মেধা, শ্রম যদি দলের জন্য বিন্দুমাত্রও কাজে লাগে, সেটি হবে আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, নওগাঁ, বগুড়াও জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবন্দ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানবৃন্দ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রুয়েট উপাচার্য, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, নর্থ বেঙ্গল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠন, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ও ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের অন্তর্গত ৫টি থানা আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের অন্তর্গত ৩৭টি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসমূহ যথাক্রমে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ জাতীয় শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ ,যুব মহিলা লীগ, মহানগর, রাবি, রুয়েট, মেডিকেল ও রাজশাহী কলেজ সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শাখা ছাত্রলীগ, মহানগর তাঁতী লীগ, বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়রবৃন্দ, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে দলীয় ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনা করা হয়। এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যবৃন্দ, জাতীয় চার নেতা সহ মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সংগীত পরিবেশন করে এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনকে মঞ্চে নিয়ে যাওয়া হয়। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য কবি বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর