ব্যবসার নামে শতকোটি টাকা নিয়ে লাফাত্তার অভিযোগ উঠেছেন যুবদলনেতা একরামুল হক মানিকের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩০২ বার পঠিত

ব্যবসার নামে শতকোটি টাকা নিয়ে লাফাত্তার অভিযোগ উঠেছেন যুবদলনেতা একরামুল হক মানিকের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বর্তমান সময়ের সমালোচিত দাগনভূইয়া থানা যুবদলের সহ-সভাপতি একরামুল হক মানিক ।প্রতারনা করে এলাকার অসংখ্য অসহায় মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন অর্ধশত কোটি টাকা।পেশায় একজন ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী হলে ও ট্রান্সপোর্ট ব্যবসার আড়ালে চালিয়ে যাচ্ছেন ইয়াবা সহ মাদকের রমরমা ব্যবসা ।যার মাধ্যমে অল্পদিনে বনে যান কোটি টাকার মালিক।সুধু তাই নয় তার বিরুদ্ধে রয়েছে নিজ দলের স্থানীয় নেতা কর্মিদের অভিযোগ । স্থানীয় নেতা কর্মীদের নাম ভাঙ্গিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রামের কেন্দ্রীয় যুবদল প্রভাবশালী নেতাদের কাছ থেকে সাহায্য সহযোগিতা এনে একায় ভোগ করেন এই প্রতারক একরামুল হক মানিক । প্রতারনার ডজন খানিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী হয়েও চট্টগ্রাম থেকে গাঁ ঢাকা দিয়েছেন রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় ।
মানিক একসময় বিএনপির ক্যাডার রাজনীতির করছেন,দাগনভূইয়া থানাধীন চুরি ছিনতাই রাহাজানি সহ সকল অপকর্মের নেতৃত্ব দিতেন মানিক নিজেই।নিজ এলাকায় নয় দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতারনার একাদিক মামলা ও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।মানিক এলাকায় বিভিন্ন সময়ে বলতেন তিনি বিজিপ্রেস এর সাফলাইয়ার মূলত বিজিপ্রেস সূত্রে জানা গেছে মানিক নামে কোনো লোকের সাথে বিজিপ্রেস এর কোনো চুক্তি বা কন্ট্রাক ও হয় নি। সবই মানিকের প্রতারনার কৌশল।নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন,বিএনপি সরকার ক্ষমতা থাকাকালীন তার কিছু সহযোগি দিয়ে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নিয়েছেন শত কোটি টাকা লোন পরিষোধ না হয়ে যান লাফাত্তা।একই কাজ চট্টগ্রামের বিভিন্ন ব্যাংকের সাথে করে এসে আশ্রায় নিয়েছেন ঢাকায়।বিভিন্ন সময়ে ঢাকার কিছু প্রভাবশালী মহলের নাম ভাঙ্গিয়ে ব্যবসায় করার নামে হাতিয়ে নিয়েছেন অর্ধশত কোটি টাকা।পুরান ঢাকার মিন্টু নামে এক ব্যবসায়ী কাছ থেকে ২০ লক্ষ টাকার ম্যাশ প্যাবরিক্স নিয়ে ও লাফাত্তা হয়ে ছেন প্রতারক মানিক।অন্য দিকে উক্ত ব্যবসায়ী এখন দিশেহারা।তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ড থেকে ট্রান্সপোর্টের কিছু ব্যবসায়ী কে ব্যবসা করা কথা বলে হাতিয়ে নেন ৩০ লক্ষ টাকা।টাকা না দিয়ে লাফাত্তা হয়ে যান প্রতারক মানিক।
টাকা চাইলে প্রশাসনিক উদ্ধর্তন কর্মকর্তাদের মিথ্যা নাম ভাঙ্গিয়ে নিরিহ ব্যবসায়ীদের দেন হুমকি ডুমকি দেন হামলা মামলা ভয় ।অনেকে মামলার ভয়ে চুপ ও হয়ে যান।তার কাছে পাওনা টাকা চাইতে গেলে ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে কখন ও প্রকাশ্যে কখন ও মোবাইলে প্রাণ নাশের হুমকি দেন ।এরই মধ্যে অনেক দেশের বিভিন্ন থানায় তার নামে প্রাণ নাশের হুমকির সাধারন ডায়েরী ও করেছেন।সর্বপরি ভুক্তভোগী সকলের একটি দাবী এই প্রতারক মানিক কে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতা আনা সময়ের দাবী।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর