রাজশাহীর চারঘাটে ছাত্রীকে পিটিয়ে অজ্ঞান করলেন শিক্ষক

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ১০২ বার পঠিত

রাজশাহীর চারঘাটে ছাত্রীকে পিটিয়ে অজ্ঞান করলেন শিক্ষক

কাজী এনায়েত, রাজশাহীঃ

রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলার পশ্চিম ঝিকরা উচ্চবিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ক্লাসে অনুপস্থিত থাকার অপরাধে পিটিয়ে অজ্ঞান করার অভিযোগ উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। সোমবার সকালে ক্লাস শিক্ষক মোজাম্মেল হক অনুপস্থিত থাকার কারণে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাকে অজ্ঞান করে দিয়েছে। মঙ্গলবার আহত ওই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত ছাত্রীর মা আদরী বেগম জানান, তিনি নিজে শারীরিকভাবে অসুস্থ। এজন্য বাড়ির কাজে সহযোগিতা করতে তাঁর মেয়ে শান্তা খাতুন কয়েক দিন বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত ছিল। প্রধান শিক্ষককে জানিয়ে ছুটিও নিয়েছিল।

১১ তারিখ সোমবার সকালে বিদ্যালয়ে গেলে ক্লাস শিক্ষক মোজাম্মেল হক অনুপস্থিত থাকার কারণে লাঠি দিয়ে মারপিট করে, এতে আমার মেয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। তবুও পাষাণ শিক্ষক মেয়েটিকে ডাক্তারের কাছে বা বাড়িতে যেতে দেয়ন নি। অভিযোগ আছে মাঝে মধ্যেই তিনি ক্লাসে এভাবে মারধর করেন।

আদরী বেগম আরও জানান, বিদ্যালয় ছুটির পর বাড়িতে এসে তাঁর মেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে তিনি স্থানীয় একজন পল্লি চিকিৎসকের কাছে থেকে মেয়ের জন্য ওষুধ নেন। ওষুধ খাওয়ানোর পরেও অসুস্থ বোধ করলে মঙ্গলবার সকালে মেয়েকে চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। এ ঘটনায় তিনি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানান।

অভিযুক্ত শিক্ষক মোজাম্মেল হক বলেন, বেত দিয়ে হাতে মেরেছি এর বেশি কিছু নেয়। সোমবার ক্লাসে ঠিকমতো পড়া না পড়ে আসায় সামান্য শাসন করেছি।

এ বিষয়ে জানতে পশ্চিম ঝিকরা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদ রানার কাছে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিন বলেন, আমাদের কাছে এ ঘটনায় এখনো কোনো অভিযোগ লিখিত আসেনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর