রাজশাহী চারঘাটে পদ্মা নদীতে প্রশাসন ম্যানেজে বেড় জাল দিয়ে মাছ ধরছে জেলারা

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২০ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪৩ বার পঠিত

রাজশাহী চারঘাটে পদ্মা নদীতে প্রশাসন ম্যানেজে বেড় জাল দিয়ে মাছ ধরছে জেলারা

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ

রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলা এলাকা জুড়ে পদ্মা নদীতে জেলেরা প্রশাসনকে ঘুষ দিয়ে অবাধে বেড় জাল ও কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরছে। এতে প্রতিদিন কোটি কোটি পোনা ও ছোট মাছ নিধন হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলার ১ নং ইউসুফপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সাহাপুর গ্রামের দক্ষিণে পদ্মানদীতে পাঁচটি বেড় জাল দিয়ে মাছ ধরা হচ্ছে। মুনাফা লোভীরা বড় বড় মাছ গুলো নিয়ে ছোট মাছ গুলো ফেলে দিয়ে যায়। এতে করে প্রতিদিন কোটি কোটি পোনা ও ছোট মাছ নিধন হচ্ছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় সাধারন জেলেরা বলেন, এক সপ্তাহ থেকে অবৈধ ভাবে বেড় জাল দিয়ে মাছ ধরা হলেও নৌ-পুলিশ ও মৎস্য কর্মকর্তারা ঘুষ বানিজ্যের কারনে তাদের কে নিষেধ করছে না। এখন পযন্ত কোন প্রশাসনই তাদেরকে নিষেধ করছে না। এতে করে প্রতিদিন কোটি কোটি পোনা ও ছোট মাছ মরে পচে নষ্ট হচ্ছে। আর ফাইদা লুটছে মহাজন (ঝটু)। এই দাদন ব্যবসায়ী ঝটু লক্ষ লক্ষ টাকার বেড় জাল কিনে ৫ জন জেলেকে দিয়ে বসে বসে আহার করছেন।

এই প্রভাবশালী দাদন ব্যাবসায়ী ঝটু,
টাকা দিয়ে স্থানীয় প্রশাসনসহ প্রতিনিধিদের কেও বসে নিয়েছেন। স্থানীয় জেলেরা ঝটুর বিরুদ্ধে উচ্চস্বরে কথা বলতে পযন্ত পারে না।

এ বিষয়ে ঝটু এবং নৌপুলিশ কর্তৃপক্ষকে বলেও কোন কাজ হয়নি। প্রবাভশালী ঝটু সব প্রশাসন ম্যানেজ করেই মাছ ধরছে।

স্থানীয় জনগন এ বিষয়ে সরকারের উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন। যেন অভিযান পরিচালনা করে পোনা ও ছোট মাছ নিধন বন্ধ হয়। সেই সাথে দস্যুদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

এ বিষয়ে চারঘাট উপজেলার ১ নং ইউসুফপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. হাফিজ, ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. রিংকু ও ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. মাসুদ রানা বলেন, মাছ ধরতে দেখেছি। আমাদের করনীয় কিছুই নাই। তবে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি দরকার।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর