মিলন চিশতী’র বিয়ের দাবি আসছে

মারুফ সরকার,
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪১৩ বার পঠিত

মিলন চিশতী’র বিয়ের দাবি আসছে

 

মারুফ সরকার,বিনোদন প্রতিনিধি:

সামনে আসছে পবিত্র ঈদুল ফিতর । আর এই ঈদে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় পরিচালক মিলন চিশতীর `বিয়ের দাবি’ । এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন,সবুজ আশরাফ সুপ্ত, আফরি সেলিনা, কাকা মাকসুদ, শেখ স্বপ্না, মিথিলা, লাবনী ও নাসির সহ অনেকে । নাটকটি রচনা, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করছেন মিলন চিশতী ।

এ ব্যাপারে পরিচালক মিলন চিশতী জানান , আশা করি নাটকটি দেখে আপনারা নিরাশ হবেন না । আর এই নাটকে যারা অভিনয় করেছেন তারা সবাই খুব দক্ষ । তারা সবাই সেরাটা দিয়ে কাজ করেছেন ।

নাটক সূত্রে জানা যায়, জঁগৎ জীবন মানে দ্বন্দ কলহ ভালবাসা মায়া—মমতার আবর্তনে ঘেরা। জীবন পথ কখন সোজা এবং মসৃন নয়। পৃথিবীতে আজপর্যন্ত কোন মানুষই জন্মলগ্ন থেকে পরলগমনের আগমুহুর্ত পর্যন্ত বিপদগামী হয়নি এমন নজির খুব কমই। এই গল্পে আমরা দেখবো, বাবা ছেলের বিয়ের দাবি নিয়ে নানা কীর্তিকলাপ। মজনু মিয়ার একমাএ ছেলে সীমান্তর বয়স যখন আট বছর তখন তার স্ত্রী মারা যায়। সীমান্ত এখন বড় হয়ে গেছে। ঢাকায় পড়াশোনা শেষ করে গ্রামে ফিরছে। ছেলে সীমান্তর বিয়ের বয়স হয়েছে কিন্তু সে কিছুতেই বিয়ে করবেনা। বাবা চাচ্ছে ছেলের বিয়ে দিয়ে ঘরে নতুন বউ আনতে কিন্তু ছেলেকে কোনভাবেই রাজী করানো যাচ্ছেনা।

এদিকে বাবা ইতিমধ্যেই মেয়েও দেখে ফেলেছে। একই গ্রামের ফিরোজা বেগমের মেয়ে আদ্রিতা। বাবাহীন এই মেয়ে মায়ের আদর্শেই বড় হয়েছে। মেয়ে দেখতে শুনতে ভালো ,শান্তশিষ্ট ,লেখাপড়া জানা। মজনু মিয়ার একটাই কথা সে ছেলেকে বিয়ে করালে এই মেয়েকেই করাবে। ইতিমধ্যে মেয়ের মা ফিরোজা বেগমের সাথে বেশ ভালো ভাব জমে গেছে মজনু মিয়ার। তাদের নিয়মিত যোগাযোগ হয়, কথা হয়। একদিন সীমান্ত গ্রামে আসার সময় মিথির সাথে ধাক্কালগে সীমান্তর। মিথি অপলোক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে তার দিকে। এ যেনো হাজার বছরের পরিচিত। মুহুর্তে প্রেমে পড়ে যায় মিথি। মিথি বাবা—মা হীন খালা ফিরোজা বেগমের কাছেই বড় হয়েছে।

আর এভাবে এগিয়ে যায় নাটকটি । এটি সিনেবাজ মাল্টিমিডিয়া ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত হবে বলে নিমার্তা সূত্রে জানা যায় ।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর