গজারিয়ায় যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

মকবুল হোসেন, গজারিয়া,মুন্সীগঞ্জ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২
  • ৫২ বার পঠিত

গজারিয়ায় যুবক ইমনের রহস্যজনক মৃত্যু.
জনমনে রয়েছে নানা প্রশ্ন

গজারিয়ায় ইমন আহম্মেদ (২৮) যুবকের আত্মহত্যা মৃত্যুর ঘটনাটি রহস্যজনক ও স্থানীয় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। যুবক ইমনের রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে পরিবার সদস্য ও স্থানীয় জনগণের মধ্যে ইমনের আত্মহত্যা না হত্যাকাণ্ড নানামুখী প্রশ্ন উঠেছে।

নিহত ইমন আহমেদ  উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের তেতৈতলা গ্রামের আলাউদ্দিন আলোর ছেলে।

সোমবার দিবাগত রাতে যুবক ইমনের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার সকাল ৭ ঘটিকায় সময় সংবাদ পেয়ে গজারিয়া থানা পুলিশ ঝুলন্ত অবস্থা থেকে লাশ উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় চারজন কে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞেসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়। তারা হলেন নিহত ইমন আহম্মেদের বাবা আলাউদ্দিন আলো, মা ,শেফালী, ভাই ও তার স্ত্রী। মঙ্গলবার সকাল৭টা ঘটিকায় গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ইমন আহম্মেদ এর ঝুলন্ত লাশ দরজার ছিদ্র দিয়ে দেখতে পায় তার সৎ মা শেফালী বেগম। পরে শেফালী বেগম ছেলের লাশ দেখে চিৎকার করিলে আশপাশের লোকজন এসে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশে ঘটনার স্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।নিহত ইমন আহম্মেদের বড়ভাই জুম্মন জানান, ইমন আমার বাবার সাথে চায়ের দোকানে কাজ করতো। বেশ কয়েক দিন আগে পারিবারিক কলহের জেরে ইমন ও তার স্ত্রী বর্ষার মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে স্ত্রী বর্ষা স্বামী ইমন কে বাড়িতে রেখে পাশ্ববর্তী সোনারগাঁও থানাধীন তার বাবার বাড়িতে  চলে যায়। স্ত্রী যাওয়ার পাঁচদিন পরে খাটের ওপর শিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওরনা প্যাঁচানো অবস্থায় ইমনের লাশ দেখতে পাই।

তিনি আরো জানান, আমার ভাই ইমন ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। তার এই মৃত্যু আমাদের কাছে রহস্যজনক মনে হচ্ছে।

নিহত ইমনের স্ত্রী বর্ষা বেগম জানান,গতকাল সোমবার রাত ৯ টায় আমার স্বামীর সাথে শেষ বারের মত ভিডিও কলে কথা হয়। তখন সে হাসি খুশি ছিল ।আমাকে বলল তোমাকে ছাড়া আমার আর ভাল লাগে না। আজ সকালে তার মৃত্যুর
খবর শুনে স্বামীর বাড়িতে আসি। স্বামী ইমনের ঝুলন্ত অবস্থা লাশ দেখে আত্মহত্যা ঘটনা অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে।

এদিকে লাশ উদ্ধার করার সময় নিহতের খাটের সাথে পা লেগে ছিল। এই ছবি দেখে স্থানীয়দের মনে ইমনের আত্মহত্যা না হত্যাকাণ্ড নানামুখী প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

গজারিয়া থানার উপ-পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর বলা যাবে হত্যা না আত্মহত্যা।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর