নোয়াখালীতে দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের লাইসেন্স বাতিল ও শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন।

মারুফ সরকার, নোয়াখালী
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২
  • ২৪ বার পঠিত

নোয়াখালীতে দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের লাইসেন্স বাতিল ও শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন।

 

মারুফ সরকার, নোয়াখালী

: নোয়াখালী সুবর্ণচরে সড়ক পূণঃনির্মাণে চলছে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতি, এতে ব্যাহত হচ্ছে সরকারের টেকসই উন্নয়ন পকেট ভরছে দূর্নীতিবাজ ঠিকাদার কন্টেক্টার এবং অসাধু কিছু কর্মকর্তা কর্মচারীদের। সড়ক সংস্কার, নির্মাণ কিংবা পূণঃনির্মাণ যে কাজই করা হচ্ছে সবই নিম্নমানের। বছর না ঘুরতেই পুরোনো চেহারায় ফিরে যায় সড়ক গুলো।

যেন সুবর্ণচরে সড়কে চলছে দূর্নীতির প্রতিযোগিতা, এসব দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের বিরুদ্ধে পুষে উঠেছে এলাকাবাসী।

গত ১১ জুন সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের পাংখার বাজারে গভীর রাতে ঠিকাদাররের নির্দেশে সাফ কন্টেকটার আব্দুল মালেকের বাড়ী থেকে পুরোনো পঁচা, খোঁয়া, ইট, বালি নতুন পাথরের সাথে মেশানোর সময় হাতে নাতে ধরে পেলে এলাকাবাসী।

পরদিন সকালে সাফ কন্টেকটারও ঠিকাদার সহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কয়েকজন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকে রুদ্ধ করে ক্ষুগ্ধ এলাকাবাসী। পরে সাময়িক ভাবে কাজ বন্ধ রাখে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। দূর্নীতির সাথে জড়িত ঠিকানার, কন্টেকটার এর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে পূনরায় কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এসব অনিয়ম দূর্নীতির সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবী, দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের লাইসেন্স বাতিল ও সহকারি ইঞ্জিনিয়ার মাজেদুল বারীর অপসারণ দাবী করেন এলাকার সচেতনমহল।

এলাকাবাসী ও যুব সমাজের উদ্যোগে শুক্রবার (১৭ জুন) বিকেল ৩ টায় সুবর্ণচর উপজেলার ৫ নং চরজুবলী ইউনিয়নের পাংখার বাজারে এক বিশাল মানববন্ধন করে এলাকাবাসী ও স্থানীয় সচেতন যুবসমাজ। এতে বক্তব্য রাখেন, যোবায়ের, আরিফসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বক্তারা বলেন, সুবর্ণচর উপজেলার পরিস্কার বাজার থেকে সিদ্দিক মার্কেট, ভূঁইয়ার হাট থেকে যোবায়ের বাজার এবং আক্তার মিয়ার হাটে যে সড়ক গুলো পূণঃনির্মাণ কাজ করা হচ্ছে তা নিন্মমানের ইট, বালি এবং পুরোনো খোয়া মিশিয়ে করা হচ্ছে। এ সড়ক গুলো কাজ পেয়েছে মিজান এন্টার প্রাইজ, মা এন্টার প্রাইজ এবং মোস্তাফা এন্ড সন্স।
এই ৩ টি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল, পরিস্কার বাজার থেকে সিদ্দিক মার্কেট, ভূইয়ার হাট থেকে যোবায়ের বাজার এবং আক্তার মিয়ার হাট সড়কের যে অনিয়ম হচ্ছে তা পূনরায় নির্মাণ, ঠিকাদার এবং সহকারি ঠিকাদার কামরুল, ঠিকাদার গিয়াস উদ্দিন, সাফ কন্টেকটার আব্দুল মালেকসহ দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের শাস্তির নিশ্চিত করা এবং উপজেলা উপ-সহকারি ইঞ্জিনিয়ার সাজেদুল বারীকে অপসারণ করার জোর দাবী জানান বক্তারা।
এসময় শত শত এলাকাবাসী ” সুবর্ণচরে দূর্নীতি চলবেনা, চলবেনা, দূর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের বিচার চাই বিচার চাই, বলে স্লোগান দিতে থাকে”।

বক্তারা আরো বলেন, সরকার শতভাগ টেকসই উন্নয়নের জন্য পর্যাপ্ত বাজেট দিয়ে থাকে, কিন্তুু দূর্নীতিবাজ ঠিকাদার কন্টেকটার সরকারের সুনাম নষ্ট করতে, সরকারকে বেকায়দায় পেলতে, সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে সড়কে ব্যাপকহারে অনিয়ম দূর্নীতি চালিয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে ঠিকাদার কন্টেকটার এলাকাবাসীকে চাঁদাবাজী মামলার হুমকি প্রদান করেন।

বক্তারা উপজেলা প্রকৌশলী, স্থানীয় সংসদ সদস্য, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে মিজান এন্টার প্রাইজ, মা এন্টার প্রাইজ এবং মোস্তফা এন্ড সন্স এই ৩ টি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল এবং জড়িত ঠিকাদার, কন্টেকটার এর শাস্তির দাবী জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর