১৮ জুলাই সোমবার জাতীয় রাজনীতিক গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র জন্মদিন

মারুফ সরকার,ঢাকা:
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২
  • ৪২ বার পঠিত

১৮ জুলাই সোমবার জাতীয় রাজনীতিক গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র জন্মদিন

১৮ জুলাই, ২০২২ সোমবার জাতীয় রাজনৈতিক, বিশিষ্ট কলাম লেখক, মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব ও সাবেক ছাত্রনেতা এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া ( মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ভুইয়া)’র শুভ জন্মদিন।

ঐতিহ্যবাহী ও জাতীয় রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ’র মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া ১৯৭০ সালের ১৮ জুলাই নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলার সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। বিশিষ্ট সূফী মোহাম্মদ সুজাত আলী ভুইয়া (নক্সবন্দী-মোজাদ্দেদী) রহ. তর পিতা ও মিনারা বেগম তার মাতা। দাদা মুহাম্মদ জিন্নাত আলী ভুইয়া (আল চিতশী-্আল ক্বাদরী) [রহ.] ও নানা মুহম্মদ আজম আলী ফকির (নক্সবন্দী-মোজাদ্দেদী) [রহ.] দুজনই ছিলেন সূফী সাধক।

ছাত্র রাজনীতিতে সামরিক স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালণ করেন। সে সময় তিনি নির্দলীয় ছাত্র সংগঠন ছাত্র-বাংলা পরিষদের ঢাকা মহানগরীর সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে মেজর জলিল ছাত্র মঞ্চের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।

রাজনৈতিক জীবনে গণতান্ত্রিক যুব শক্তির আহ্বায়ক, প্রগতিশীল যুব শক্তির সভাপতি, মাতৃভূমি গণসংহতি পরিষদ (মাগসপ)’র সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। জাতীয় রাজনীতিতে প্রগতিশীল জাতীয়তাবাদী দল-পিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৩ সালে ভারতীয় নদী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে আগ্রাসন প্রতিরোধ জাতীয় কমিটির অন্যতম শীর্ষ নেতা ও প্রচার উপ-কমিটির আহ্বায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। টিপাইমুখ অভিমুখে মাসিক মদীনা সম্পাদক মাওলানা মুহিউদ্দিন খানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত লংমার্চের অন্যতম সংগঠক ছিলেন তিনি। এছাড়াও জাতীয় গণমুক্তি আন্দোলন ও স্বদেশী জাতীয়তাবাদী কেন্দ্র-স্বজাক’র সভাপতি ও মহাসচিব উভয় দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৫ সালে ৮ দলীয় মোর্চা জাতীয় ফ্রন্টের মহাসচিব হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।

মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম’র প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘ সময়।

২০০৮ সালে মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপকে সুসংগঠিত করতে সাবেক মন্ত্রী শফিকুল গানি স্বপনের আহ্বানে কাজ শুরু করেন। দলের অতিরিক্ত মহাসচিব হিসাবে দলকে সুসংগঠিত করতে ও নিবন্ধন পেতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

২০০৯ সালে জুলাইয়ের কাউন্সিলে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব এবং ঐ একই বছরের বিশেষ কাউন্সিলে দলের মহাসচিব হিসাবে দায়িত্ব গ্রহন করেন। ঐ বিশেষ কাউন্সিলের প্রয়াত শফিকুল গানি স্বপনের জেষ্ঠপুত্র জেবেল রহমান গানি দলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধিন ১৮ দলীয় জোট ও ২০ দলীয় জোট গঠনে দলের পক্ষ থেকে অর্পিত দায়িত্ব পালন করেন এবং জোটের শীর্ষ নেতা হিসাবে জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৮ সালের ১৬ অক্টোবর ২০ দলীয় জোট ত্যাগকালে দলের পক্ষ থেকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী নেতৃত্বে যুক্তফ্রন্টের পূণ:গঠনে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

রাজনৈতিক জীবনে বিভিন্নভাবে অনেক বরেন্য রাজনীতিকের সাথে কাজ করার সুযোগ হয়েছে তার। যাদের অন্যতম হলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মিজানুর রহমান চৌধুরী, সাবেক প্রধানমন্ত্রী কাজি জাফর আহমেদ, সাবেক মন্ত্রী আনোযর জাহিদ, সাবেক মন্ত্রী আবদুল মান্নান ভুইয়া, সাবেক মন্ত্রী কর্ণেল (অব.) ড. অলি আহমেদ বীর বিক্রম, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম, সাবেক মন্ত্রী রেদোয়ান আহমেদ, সাবেক মন্ত্রী খালিদুর রহমান টিটু, ভাষা সৈনিক আহাদ, ভাষা সৈনিক আবদুল মতিন, সিরাজুল হোসেন খান, বাবু সুনীল গুপ্ত, কমরেড নুরুল হক মেহেদী, সাবেক মন্ত্রী কর্ণেল (অব.) আকবর হোসেন বীর প্রতীক, সাবেক মন্ত্রী শফিকুল গানি স্বপন, সাবেক স্পীকার আবদুর রাজ্জাক, মাওলানা ফজলুল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই), শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক, শেখ আশরাফ হোসেন, শফিউল আলম প্রধান, শেখ শওকত হোসেন নিলু, হাবিবুর রহমান তালুকদার বীর প্রতীক, মেজবাহউদ্দিন সাবু, মুফতী ফজলুল হক আমিনী, মাওলানা মুহিউদ্দিন খান, মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী, এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেন ফোরকান, হাসান উদ্দিন সরকার প্রমুখ।

কলাম লেখক হিসাবে তিনি দৈনিক শক্তি, দৈনিক মিল্লাত, দৈনিক ইনকিলাব, দৈনিক আমার দেশ, দৈনিক নয়াদিগন্ত, দৈনিক যুগান্তর, জাগোনিউজ, সারাবাংলা, ঢাকা টাইমস এ লিখে থাকেন। এছাড়াও সাংবাদিক হিসাবে দৈনিক সবুজ বিপ্লব, দৈনিক ইনকিলাবে কাজ করেছেন। লাইভবার্তা নামক অনলাইন নিউজপোর্টালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

আজকের প্রজন্মের একজন মেধাবী রাজনীতিক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বর্তমানে বাংলাদেশ ন্যাপ’র মহাসচিব ছাড়াও জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের আহ্বায়ক, ‘বিদ্রোহী’ কবিতা শতবর্ষ উদযাপন নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব ও জাতীয় প্রতিরোধ আন্দোলনের সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

বরেণ্য রাজনীতিবিদ, গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্ব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র শুভ জন্মদিনে জাতীয় রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সামাজিক, সাংস্কৃতি, মানবাধিকার সংগঠন, গণমাধ্যমের প্রধানগণ শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে তার সু-স্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন।

– মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা
মহাসচিব, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি
চেয়ারম্যান জাতীয় মানবাধিকার সমিতি

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর