1. admin@onakanthirkantho.com : admin :
  2. editor1@raytahost.com : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
  3. banhlarodikar69@gmail.com : Manun Mahi : Manun Mahi
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
একদিনে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদায় হয়েছে ৬১ লাখ ৮৩ হাজার ১৫০ টাকা।” আমির খসরু মাহমুদ ও নুরুল হক রিমান্ডে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ পাবেন ৯৩%, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৫% ও অন্যান্য ২% ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের ধস্তাধস্তি, আটক-২ ডিএসবি বার্ষিক পরিদর্শনে এসপি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। কনের ইচ্ছায়’ হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে লালমনিরহাটের বর রাজশাহী জেলা ডিবির অভিযানে ফেন্সিডিল সহ গ্রেফতার ১ মধুপুরে বনবিভাগ কর্মকর্তাদের সাথে আদিবাসীদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবস পালিত

মঙ্গলে অভিযানের পরিবর্তে টিকার পেছনে অর্থ ব্যয় ভাল বিল গেটস

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৮৬ বার পঠিত

ডেস্ক নিউজঃ  প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী বিল গেটস বলেছেন, মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার পেছনে অর্থ খরচ করা তাঁর কাছে একধরনের অপব্যয়। মঙ্গল গ্রহে ভ্রমণের চেয়ে টিকা কেনার পেছনে অর্থ খরচ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন তিনি।

বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিল গেটস বলেন, ‘মঙ্গল গ্রহে যাওয়াটা অনেক বেশি ব্যয়বহুল। এর বদলে আপনি হামের টিকা কিনতে পারেন। এক হাজার ডলার খরচ করে টিকা কিনে আপনি একজনের জীবন বাঁচাতে পারেন।’ মূলত এ কারণে মঙ্গলে যাওয়ার চেয়ে টিকা কেনাকে বিল গেটস বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন।বিশ্বের বর্তমান শীর্ষ ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় থাকা ইলন মাস্ক সম্প্রতি বলেছেন, তিনি মঙ্গল গ্রহে মানব বসতি স্থাপনে বিনিয়োগে আগ্রহী। এই তালিকার অপর ব্যক্তি জেফ বেজোসও প্রায় একই কথা বলেছেন।

কিন্তু বিবিসিকে দেওয়া সাম্প্রতিক সাক্ষাতকারে এ সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে বিল গেটস বলেন, ‘আমার মনে হয়, মঙ্গলে যাওয়ার চেয়ে টিকা কেনা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

সাক্ষাৎকারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার নিয়েও কথা বলেন বিল গেটস। তাঁর মতে, এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার ‘নাটকীয়ভাবে’ মানব সভ্যতাকে বদলে দিতে পারে।

‘এটি (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা) আমাদের চিকিৎসা ও বিজ্ঞানের নানা প্রশ্নের উত্তর জানতে সহায়তা করবে। এটি শুধু রোবট নয়, এটি পড়তে ও লিখতে আমাদের সহায়তা করে। এমনকি এটি আমাদের উৎপাদনশীলতা বাড়াতেও ভূমিকা রাখবে।’

একসময়ের বিশ্বের শীর্ষ ধনী বিল গেটস ২০০৬ সালে মাইক্রোসফটের দৈনন্দিন কাজ থেকে অবসর নিয়ে সাবেক স্ত্রী স্ত্রী মেলিন্ডা গেটসের সঙ্গে পূর্ণোদ্যমে লেগে পড়েন দাতব্য কাজে, গড়ে তোলেন বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন নামের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। এই ফাউন্ডেশন বিভিন্ন জনহিতকর কাজ ও গবেষণায় অর্থ দান করে। দাতব্য কাজে পূর্ণ মনোনিবেশ করতে ২০১৯ সালে মাইক্রোসফটের পরিচালনা পর্ষদ থেকেও অবসর নেন বিল গেটস।

এখন বিল গেটস নিয়মিত বিজ্ঞানীদের সঙ্গে দেখা করছেন, স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে কথা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে সোচ্চার আছেন। প্রতিদিন নিয়ম করে পড়াশোনা করছেন, লিখছেন। পাশাপাশি বিল গেটস বিশ্ব থেকে অপুষ্টি এবং ম্যালেরিয়া ও পোলিওর মতো রোগ দূর করার লক্ষ্য পূরণে কাজ করে যাচ্ছেন।

করোনা মহামারির সময় বিশ্বজুড়ে নানা রকম ষড়যন্ত্র তত্ত্ব ছড়িয়ে পড়েছিল, যা বেশ অবাক করেছিল বিল গেটসকে। বিবিসিকে এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি এমনটা আশা করিনি। মহামারির সময় আমি লাখ লাখ বার্তা আদান-প্রদান করেছি। এটা সত্য, আমি টিকা প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত ছিলাম, কিন্তু তা কেবল মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

Archive Calendar

All rights reserved © 2019
Design by Raytahost